বকশীগঞ্জে পালিয়ে যাওয়া ঘাতক বাস চালককে আটক করেছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিনিধি ॥
বকশীগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত শিশু ইয়াকুব আলীকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যাওয়া ঘাতক বাস চালক ওয়াসিম মিয়াকে আটক করেছে হাইওয়ে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শেরপুর নবীনগর বাসস্ট্যান্ড থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। বুধবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। চালক ওয়াসিম মিয়া হালুয়াঘাট উপজেলার মোকামিয়া এলাকার বদিউজ্জামানের ছেলে। নিহত শিশু ইয়াকুব সূর্যনগর পশ্চিমপাড়া এলাকার জিয়াউল হকের ছেলে।

জানা যায়,গত ১২ এপ্রিল সন্ধায় সূর্যনগর পশ্চিমপাড়া নামক স্থানে শিশু ইয়াকুব আলীকে (১০) শেরপুরের ড্রীমল্যান্ড পরিবহনের একটি বাস চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এলাকাবাসী বাসটি আটকের জন্য ধাওয়া দিলে চালক বাসটি নিয়ে দ্রুত কেটে পড়ে। পরে বাট্টাজোড় নতুন বাজার নামক স্থানে বাসটি ফেলে পালিয়ে যায় ঘাতক বাস চালক ওয়াসিম। পরে এলাকাবাসী বাসটি আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পরে হাইওয়ে থানা পুলিশ বাসটি উদ্ধার করে। এই ঘটনায় পরের দিন নিহত ইয়াকুবের চাচা ছাদিকুল ইসলাম বাদি হয়ে ওই বাসের অজ্ঞাতনামা চালককে আসামী করে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শেরপুর থেকে চালককে আটক করা হয়।

বকশীগঞ্জ বাস মালিক সমিতির সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য জয়নাল আবেদীন জানান, দূর্ঘটনার পর নতুন বাজার এলাকায় বাস রেখেই পালিয়ে যায় চালক। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের পর দ্রুত সময়ে মধ্যে আসামীকে আটক করায় বকশীগঞ্জ হাইওয়ে থানা পুলিশকে ধন্যবাদ জানাই।

বকশীগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি নয়ন দাস জানান,দূর্ঘটনার পর বাস ফেলেই পালিয়ে যায় চালক। খবর পেয়েই তাৎক্ষনিক আমরা ঘাতক বাসটি আটক করে থানায় নিয়ে আসি। গতকাল মঙ্গলবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শেরপুর নবীনগর বাসস্ট্যান্ড থেকে তাকে আটক করা হয়। বুধবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here