২০ উইকেটের দিনে আয়ারল্যান্ডের বড় লিড

0
178

এমন দিন দেখার জন্য ইংল্যান্ড প্রস্তুত ছিল না নিশ্চয়ই। কিন্তু আয়ারল্যান্ডের বোলারদের তোপে সাদা পোশাকে সবথেকে বাজে দিন কাটালো রুট, রয়রা।

গতকাল লর্ডসে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে মাত্র ৮৫ রানে অলআউট ইংল্যান্ড। ইনিংস টিকেছে মাত্র ১২৮ মিনিট, ২৩.৪ ওভার। ওভারের হিসাবে ঘরের মাঠে টেস্টে ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সংক্ষিপ্ততম ইনিংস এটিই। আগের রেকর্ড ছিল ৩০ ওভার, ১৯৯৫ সালে এজবাস্টনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। ঘরে-বাইরে মিলিয়ে এটি ইংলিশদের পঞ্চম সংক্ষিপ্ততম ইনিংস। আর সবচেয়ে সংক্ষিপ্ততম ইনিংস ১৯০২ সালে মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৫.৪ ওভার।

ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার দিনে বোলাররা এগিয়ে এসেছেন ভালোভাবে। কিন্তু আইরিশরা বড় লিড পেয়েছে ঠিকই।  প্রথম ইনিংসে আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ ২০৭।  ১২২ রানে পিছিয়ে থেকে ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছিল। কিন্তু ১ ওভারের বেশি ব্যাটিং করার সুযোগ পায়নি।  স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ না করে অপরাজিত থেকে সাজঘরে ফিরেছেন জ্যাক লিচ ও ররি বার্নস।

সবুজ ঘাসের উইকেটের সকাল থেকে বাড়তি সুইং পাচ্ছিলেন পেসরারা। পাশাপাশি থ্রি কোয়ার্টার লেন্থের বলগুলো উইকেটের পেছনে যাচ্ছিল ঝড়ো গতিতে।  এমন উইকেট ব্যাটসম্যানদের জন্য বড় পরীক্ষার জায়গা।  দুই আইরিস পেসার টিম মারটাগ ও মার্ক অ্যাডায়ার নতুন বলে শুরু থেকেই ছিলেন আগ্রাসী।  পরবর্তীতে র‌্যানকিন সেই ধারা অব্যাহত রাখেন।  মাঝে থম্পসন রান দিলেও অপরপ্রান্তের বোলাররা চেপে রেখেছিলেন ব্যাটসম্যানদের।

১৩ রানে ৫ উইকেট নিয়ে আয়ারল্যান্ডের সেরা বোলার মারটাগ।  অ্যাডায়ার ৩টি এবং র‌্যানকিন নিয়েছেন ২ উইকেট।  অন্যদিকে স্বাগতিকদের হয়ে জো ডেনলি সর্বোচ্চ ২৩ রান করেছেন।  দুই অঙ্ক ছুঁয়েছেন কেবল স্যাম কুরান (১৮) ও ওলি স্টোন (১৯)।

 

জবাবে আয়ারল্যান্ড দুই উইকেট হারিয়ে পেয়ে যায় লিড।  কিন্তু নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানোয় তাদের ইনিংসও বড় হচ্ছিল না।  তৃতীয় উইকেটে আসে সর্বোচ্চ ৮৭ রানের জুটি।  অ্যান্ডু বালবার্নি ৫৫ ও পল স্টারলিং ৩৬ রান করেন।  তাদের সাজঘরে ফেরার পর কেবল কেভিন ও’ ব্রায়েন ইনিংস বড় করতে পারেন। তাকে সমর্থণ করতে পারেননি কেউ।  ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন এ পেস অলরাউন্ডার।  ২০৭ রানে শেষ হয় তাদের ইনিংস।

ইংল্যান্ডের হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন স্টুয়ার্ট ব্রড, স্টোন ও কুরান।  মঈন আলীর পকেটে গেছে অবশিষ্ট উইকেট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here